fbpx

পিপীলিকা এবং ফড়িং এর গল্প | The Ant and the Grasshopper

Sharing is caring!

Bengali short stories| the ant and the grasshopper

Bengali short stories| পিপীলিকা এবং ফড়িং এর গল্প: প্রচণ্ড গরমের দিন ছিল। একটা ফড়িং ছায়ায় শুয়ে ছিল, সূর্যের উত্তাপ থেকে একটু আরাম পাওয়ার জন্য,  ঠিক ওই সময় একটি পিপড়া পাশদিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। পিপীলিকাটা শীতের জন্য খাদ্য সংরক্ষণ করার জন্য একটি বিশাল বীজ টেনে আনছিল।

Bengali short stories| the ant and the grasshopper

শুধু প্রচণ্ড গরমের পিঁপড়ির দিকে তাকিয়ে ঘাসফড়িংকে ক্লান্ত লাগছে। “পিপীলিকা, তুমি কেন সারাদিন এইভাবে  কাজ করছো? তুমি কেন কিছুক্ষণ আমার সাথে বসে একটি গানে অংশগ্রহণ করছো না ?” ঘাসফড়িং জিজ্ঞাসা করলো এবং সে তার বেহালাটি বের করলো গান বাজানোর জন্য। 

“পিঁপড়া জবাব দিল”,  আমি শীতের জন্য খাবার সংগ্রহ করছি যখন শীত পড়বে তখন খাবার সংরক্ষণ করাও যাবে না বা পাওয়াও যাবে না। তাই এখনি সবচেয়ে ভালো সময় খাবার সংরক্ষণ করার । তুমি যদি একই কাজ করো তাহলে হয়তো তোমার জন্য এটি একটি ভাল কাজ হবে যাতে তুমি একটু নিরাপদে থাকতে পারবে শীতের সময়। 

” ঘাসফড়িং তীক্ষ্ন উত্তর দিয়ে বলল “ওঁ পিঁপড়া, শীত নিয়ে কেন চিন্তিত? এখন প্রচুর খাবার আছে! আর শীত আসতেও অনেক দেরি আছে চিন্তার কারণ নেই।  পিঁপিলিকা আর কিছু না বলে সে তার বোঝা নিয়ে দূরে চলে গেল, ফড়িং তার বেহালা বাজাতে এবং গান কর্মতে থাকলো। 

Bengali short stories| the ant and the grasshopper

শীতকাল চলে আসলো এবং পিঁপড়া যেমন যেমন সতর্ক করেছিল, ঠিক  তেমনি ঘাসফড়িংয়ের কোনও খাবার নেই এখন। তাই সে পিঁপিলিকার কাছে গেল এবং  “কেমন আছো, পিপীলিকা! আমি কিছু খাবারের বিনিময়ে তোমাকে গান গাইয়ে শুনাতে চাই তাই এসেছি। ”

Bengali short stories| the ant and the grasshopper

“সারা গ্রীষ্ম আমি কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছিলাম, যখন তুমি গান করেছিলে এবং আমাকে দেখে হেসেছিলে।  ফলস্বরূপ আমার এখন পুরো পেট ভর্তি এবং তুমি এখন ক্ষুধার্ত।

মূল কথাঃ সময়ের কাজ সময়ে করে ফেলতে হয়, অলস হয়ে বসে থাকলে ওই সময় আর ফিরে আসবে না! 

You May Also Like

2 thoughts on “পিপীলিকা এবং ফড়িং এর গল্প | The Ant and the Grasshopper

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares