একটি কাচের বল ( A Crystal ball)| Bengali story

Sharing is caring!

একটি কাচের বল | Bengali story: দক্ষিণ স্পেনে, ছোট একটা গ্রাম, সেখানে লোকজন খুব আনন্দের সাথে বসবাস করছিল। ছোট ছোট বাচ্চা ছেলেমেয়েরা তাদের বাড়ির বাগানের গাছের ছায়ায় নিচে খেলাধুলা করত। একটা মেষপালক ছেলে, নাম নাসির, যে কিনা গ্রামের কাছাকাছি তার বাবা, মা এবং দাদীর সাথে বসবাস করত।

 প্রতিদিন সকালে, নাসির তার ভেড়াগুলো নিয়ে পাহাড়ের উপরে উঠত আর যেখানে পর্যাপ্ত ঘাস আছে যেখানে ছেড়ে দিত। ঠিক  সন্ধ্যা বেলায় নাসির তার ভেড়াগুলো নিয়ে আবার তার গ্রামে চলে আসতো। প্রতিদিন রাতে তার দাদী তাকে তারার গল্প শুনাতো। এই গল্পগুলো নাসিরকে আনন্দিত করত। 

ওই দিনগুলোতে, নাসির তার ভেড়াগুলো দেখাশুনা করছিল এবং সে বাঁশি তার বাজিয়ে সময় কাটাতো,হঠাৎ নাসির একটা আশ্চর্যজনক আলো দেখল ঝোপের থেকে। যখন যে ঝোপের কাছাকাছি গেল, সে দেখল সুন্দর একটি কাছের বল। কাছের বলটি বিভিন্ন রং এ ঝলঝল করছিল ঠিক যেন রং ধুনুর মত। নাসির খুব সর্তকতার সাথে বলটি তার হাতে তুলে নিল। খুব আশ্চর্যজনকভাবে, হঠাৎ, সে অল্প একটা শব্দ শুনতে পেল ওই কাছের বলটি থেকে।

বলটি বলল “ তুমি তোমায় যে কোন একটা ইচ্ছায় কথা বল এবং তোমায় ওই ইছা আমি পূরণ করে দিব” নাসির বিশ্বাস করতে পরছিল না যে সে সত্যিই মানুষের মত আওয়াজ শুনতে পেয়েছে। যখন সে পুরোপুরি নিশ্চত হল যে সে প্রকৃতপক্ষেই আওয়াজ শুনতে পেয়েছে যা কিনা এসেছে ওই কাছের বল থেকে। সে কি বা কোন ইচ্ছার কথা তা সে ঠিক  করতে পরছিল না। টাই সে নিজেই নিজেকে বললঃ “ যদি আমি আগামীকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করি তাহলে হয়ত আরো অনেক কিছু মনে করতে পরবো। তারপর না হয় আমি আমার ইচ্ছায় কথা জানাবো । 

নাসির  তার ব্যগের ভিতেরে এই কাচের বলটা রেখে দিল এবং আনন্দের সাথে সে তার ভেড়াগুলো নিয়ে বাড়িতে চলে । সে সিন্ধান্ত নিল তার এই কাছের বল সম্পর্কে কাউকে কিছুই  বলবে না। বল পাওয়ার দ্বিতীয়ও দিন চলে গেল। নাসির সিন্ধান্ত নিতে পরছিল না  যে সে কি চাইবে, কারণ তার কাছে সকল কিছুই ছিল যা তার দরকার। এর প্রের দিনও চলে গেল একিভাবে, কিন্তু নাসির ওই দিন তার তার ইচ্চার কথা বলতে পারলো না । কিন্তু নাসির এই দিনগুলোতে বেশ হাসিখুশি থাকতো। নাসিরের এই পরির্বতন দেখে সবাই খুব অবাক হয়ে গেলো । 

একদিন একটা ছেলে নাসির এবং তার ভেড়ার পিছু নিল এবং গাছের পিছনে লুকিয়ে থাকলো। নাসির সব সময়ের মত একটা গাছের কোনায় যেয়ে বসল, সে তার ব্যগ থেকে কাচের বলটা বের করল এবং এটা কাছের বলটা কিছুক্ষণ দেখলো এবং লুকিয়ে থাকা ছেলেটাও দেখল।  লুকিয়ে থাকা ছেলেটা অপেক্ষা করছিল নাসিরের ঘুমানোর আগ পর্যন্ত। যখনই নাসির ঘুমিয়ে পড়ল ছেলেটি কাচের ওই বলটা নাসিরের কাছ থেকে নিয়ে চলে গেল। ছেলেটা যখন গ্রামে এসে পৌছালো, সে সবাইকে ডাকদিল এই কাচের বলটা দেখানোর জন্য। গ্রামের লোকজন একজন আরেক জন্যের কাছ থেকে নিয়ে দেখছিল, হঠাৎ একজন বলটা  নিয়ে ঘোরালো এবং তার ওই কাচের বল থেকে একটা আওয়াজ শুনতে পেল এঁর বলটা থেকে এবং বললঃ “ তুমি তোমায় যে কোন একটা ইচ্ছায় কথা বল এবং তোমায় ওই ইছা আমি পূরণ করে দিব”

এক ব্যক্তি বলটা হাতে নিলো এবং চিৎকার করে বলে উঠলো “ আমি এক ব্যগ ভরটি স্বর্ণ চাই”। এরপর আর একজন বলটা নিলো এবং বলে উঠলো “ আমি চাই দুই সিন্দুক ভরটি সর্বপ্রকার অলংকার”। কিছু কিছু মানুষ চাইলো তাদের পুরনো বাড়ির পরিবর্বরতে একটা নতুন বাড়ি যার সাথে থাকবে বাগান আর ওটা যেন হয়  সম্পর্ণ স্বর্ণের। আরো অন্যান্য লোকজন চাইলেন ব্যগ ভরটি স্বর্ন ।

 

তাদের সকলের মনের ইচ্ছা পূরণ হয়ে গেছেও কিন্তু গ্রামের সকল লোকজন ঠিক  আগের মত এখন এঁর আগের মত হাসি খুশি নেই। কারণ যার  কাছে স্বর্ন আছে তার কাছে সর্বপ্রকার অলংকার নেই আবার যার কাছে সর্বপ্রকার অলংকার আছে কিন্তু তার কাছে এগুলো রাখার জায়গা নেই। এইসব কারণে, গ্রামের সকল মানুষ একজন আরেকজনের সাথে কথা বলা ছেড়ে দিয়েছে। গ্রামের যেই বাগানে শিশুরা খেলা ধুলা করত যেই জায়গাটা এখন আর নেই কারণ সেখানে বিভিন্ন অলংকার আর স্বর্ন দিয়ে ভরে গেছে। শিশুরা তাদের খেলার জায়গা হারিয়ে অনেক বেশি অখুশি ছিল। শুধু নাসির এবং তার পরিবারই অনেক আনন্দে ছিল। 

একদিন গ্রামের সকল বাচ্চারা ওই কাচের বলটা নাসিররের কাছে নিয়ে আসে । বাচ্চারা নাসিরকে বললঃ “ যখন আমাদের গ্রাম অনেক ছোট ছিল তখন সবাই অনেক হাসিখুশি ছিল এবং তাদের বাবা-মা তাদের সাথে কথা বলত। তারা আরো বললঃ “ গ্রামের কেউই আর আগের মত নেই সবাই অনেক বেশি অখুশি কেউ কিছু পেয়ে আর কেউ কিছু অল্প পেয়ে। দামি দামি জায়গা আর দামি দামি স্বর্ণ অলংকার আমদের শুধু কষ্ট দিচ্ছে। 

নাসির যখন দেখল যে সবাই তাদের এই কাজে সত্যই অনুতপ্ত তখন সে বলল” যদিও কাছের বলটা আমাকে জিজ্ঞাসা করে ছিল আমি কি চাই, আমি তা তখন কিছুই চাই নি। যদি আপনারা সবাই সত্যই চান যে সবকিছু আগের মত করে দিতে তাহলে আমি আমার ইচ্ছা চাইবো। সবাই অনন্দের সাথে নাসিরের সাথে একমত হইলো। নাসির কাছের বলটা নিজের হাতে নিলো এবং বলটা ঘোরালো এবং সে তার ইচ্ছার কথা বলল যে সবকিছু যেন আগের মত হয়ে যায়। মুহূর্তের মধ্যেই সবকিছু উধাও হয়ে গলে, গ্রামের প্রকৃতিক সুন্দর ফিরে এলো আগের মত করে। 

ঠিক আগের মত করে গ্রামের লোকজন হাসিখুশিতে জীবন শুরু করলো আর বাচ্চারা পেল তাদের গাছের ছায়ার  নিচে খেলার সুযোগ। নাসির আগেরমত তার দৈনিক কাজে লেগে গেল এবং আগের মত করে নাসির সূর্য ডুবার সময় বাঁশি বাজায় আর তার মিষ্টি আওয়াজ ছড়িয়ে পরে সারা গ্রামে।

একটি কাচের বল ( A Crystal ball)| Bengali story

 নীতি কথাঃ আমাদের যা আছে তাই নিয়েই আমাদের খুশি থাকা উচিত, এর জন্য অতিরিক্ত টাকা পয়সার পিছনে ছুটার দরকার নেই। কথায় আছে লোভে পাপ পাপে মৃত্যু।   

Summary
একটি কাচের বল ( A Crystal ball)| Bengali story
Article Name
একটি কাচের বল ( A Crystal ball)| Bengali story
Description
Bengali story: প্রতিদিন সকালে, নাসির তার ভেড়াগুলো নিয়ে পাহাড়ের উপরে উঠত আর যেখানে পর্যাপ্ত ঘাস আছে যেখানে ছেড়ে দিত। ঠিক সন্ধ্যা বেলায় নাসির
Author
Publisher Name
Bangla Amader
Publisher Logo

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares