পডকাস্টের জন্য কি ধরনের মাইক্রোফোন ব্যবহার করবেন এবং এর দাম?

Sharing is caring!

আপনি যুদি পডকাস্ট করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে মাইক্রোফোন সম্পর্কে। কারণ পদকাস্ট হল অডিও নাকি ভিডিও, আপনার শ্রোতারা আপনার কণ্ঠ শুনবে।

আর যুদি সেটা ভালো না হয় তাহলে সেটা হিতে বিপরীত হতে পারে। আপনি যুদি বড় বড় পডকাস্টারদের দেখেন তাহলে দেখবেন তারা মাইক্রোফোনের উপড়ে বেশি জোর দেয়।

কি ধরনের মাইক্রোফোন কিনবেন বা নিবেন

মাইক্রোফোন দুই ধরনের হয়ে থাকে একটা হল কনডেনসার এবং আরেকটা হল ডাইনামিক

কনডেসার মাইক্রোফোনঃ

কনডেসার মাইক্রোফোন হল যেটা দিয়ে আপনি রেকোডিং করলে তা অনেক স্পষ্ট শুনা যায় এবং আপনার ছোট ছোট বা কোন শব্দও এটা ধরে ফেলে।  যুদি আপনি দূর থেকে করেন তাও সেটা ধরে ফেলে। 

খুব সহজে আপনি এভাবেই বুঝতে পারেন। যারা পডকাস্ট করে তারা সাধারণত ডাইনামিক করে।

কনডেসার মাইক্রোফোন আবার অনেক ক্ষেতে পডকাস্টের জন্য ভালো যুদি আপনার ঘরটা ওই রকম নিরিবিলি হয়, যেখানে বাহিরের শব্দ আসবে না।

উদাহরণ হিসেবে আপনি রেডিও স্টুডিও কিংবা অডিও স্টুডিও বলা যেটে পারে। যুদি ওই রকমের হয় তাহলে আপনি কনডেসার মাইক্রোফোন ব্যবহার করতে পারেন। 

আপনি যুদি নতুন হয়ে থাকেন এবং টাকা কম থাকে তাহলে আপনি Boya MM1 দিয়ে শুরু করতে পারেন। অনেক বড় বড় ইউটিউবরাও এই মাইক্রোফোন ব্যবহার করে থাকে। এইটা একটা কনডেসার মাইক্রোফোন। আপনি BDShop থেকে অনলাইনে কিনতে পারবেন।

Boya microphone review

আপনি যুদি আরো ভালো দামি এবং দামি কিনতে চান তাহলে ভালোর শেষ নাই। আপনি নিচে কমেন্ট করে জানান আপনার যুদি এর থেকে আরো ভালো কনডেসার মাইক্রোফোন লাগে।

ডাইনামিক মাইক্রোফোন:

যুদি আপনি শুধু পডকাস্টের কথা চিন্তা করেন এবং প্রফেশনালভাবে করার ইচ্ছা থাকে তাহলে আপনাকে ডাইনামিক মাইক্রোফোন ব্যবহার করতে হবে।

এখন বলতে পারেন ডাইনামিক মাইক্রোফোনের সুবিধা কি ?

ডাইনামিক মাইক্রোফোনে বাহিরের শব্দ সাধারণত ধরে না। যুদি আপনার বাসাটা বা যেখানে পডকাস্ট করছেন ওখানে একটু শব্দ থাকেও ।

এই যেমন ধরেন আপনার ফ্যান অন আছে এতে আপনার তেমন শব্দ ধরবে না। আপনি এডিটিং এর সময় খুব সহজে এইগুলো( backgroud Noice) সরাতে পারবেন। যেটা কনডেসার মাইক্রোফোনের বেলাতে কষ্ট হবে অনেক।

সব বড় বড় পডকাস্টারা beginner and Mid লেভেল পডকাস্টারের জন্য এই মাইক্রোফোনটা ব্যবহার করার জন্য বেশি বলে তা হলঃ

ATR2100x মাইক্রোফোনটা, যদি এখন এটা পাওয়া যায় না। আর এর বদলে বাজারে নতুন একটা আসছে আর ওইটার দাম এইটার চেয়েও বেশি।

 ATR2100x দামছিল ৮৫০০ টাকা তাও এটা বাংলাদেশ পাওয়া যায় না। কিন্তু  ATR2100x  এর মত কাজ করে এবং দামও কম সেটা হল the Samson Q2U

মজার ব্যবপার হল  the Samson Q2U ও মনে হয় না বাংলাদেশ পাবেন। তাই এইগুলো পেতে হলে আপনাকে একটু খোঁজা  খোজি করতে হবে। 

আর এই কারণেই বাংলাদেশের মানুষ বেশি কনডেসার মাইক্রোফোন কিনে বা কিনতে বাধ্য হয়।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares
error: Content is protected !!